1. riajul.kst1@gmail.com : riajul :
  2. riajul.kst@gmail.com : riajul.kst@gmail.com :
সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়া মহাসড়কে ‘যে লাউ সেই কদু’

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৫২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: ব্যস্ত ও জনগুরুত্বপূর্ণ একটি মহাসড়কের নাম ‘ত্রিমোহনী-ভেড়ামারা মহাসড়ক’। এই সড়ক দিয়ে দক্ষিণ পশ্চিম উত্তর পূর্ব দিকের জেলা ও উপজেলার পাশাপাশি ঢাকা জেলা জনসাধারণ সারা দেশের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে। এর বাইরেও রয়েছে এ মহা সড়ক দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের হাজারো পর্যটকের যাতায়াত। তবে ভোগান্তির কারণে ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় থেকে ত্রিমোহনীর ফ্লোর লেনের খোড়াখুড়ি কাজ শুরু হয়েছে। তবে কয়েকদিন আগে ভেড়ামারা মহা সড়কে নতুন করে রাস্তা মেরামত হলেও অল্প কিছুদিনের মধ্যে তা নষ্ট হয়ে গেছে। অনেকেই মনে করছেন এখানে বালিবাহি ড্রাম ট্রাকের কারণে

কোথাও সড়কের পিচ উঠে গেছে, কোথাও ছোট–বড় অসংখ্য গর্ত। কোথাও সড়ক দেবে গেছে, কোথাও চলছে খোঁড়াখুঁড়ি। শীত ও গ্রীষ্মে সড়কজুড়ে ধুলাবালু ওড়াউড়ি করে আর বর্ষায় সড়ক হয়ে ওঠে কাদাময়।

এ মহাসড়কের ২০ কিলোমিটার এলাকার বেশির ভাগেই এ অবস্থা। এতে গুরুপূর্ণ এই মহাসড়কে যানবাহন বিকল হয়ে প্রায়ই যানজট লেগেই থাকে। ভোগান্তি নিয়েই মানুষ গন্তব্যে পৌঁছায়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রাস্তা দিয়ে চলাচল অনুপযোগী হয়ে উঠেছে। ব্যাপক গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এ নিয়ে যাত্রী সাধারণ ও যানবাহন চালক-হেলপারদের মধ্যে ক্ষোভের শেষ নেই। এ মহা সড়ক ও জনপথ বিভাগ সৃষ্ট গর্তগুলোতে ইট-বালি দিয়ে ভরাট করে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করে। তবে দিন শেষে আবারও ‘যে লাউ সেই কদু’ অবস্থা।

পরিদর্শনে আরও দেখা যায়, মিরপুর, ভেড়ামারা উপজেলার বয়ে যাওয়া রাস্তায় দিয়ে কুষ্টিয়া থেকে অসুস্থ রোগীকে নিয়ে যাওয়ায় রাজশাহী, ঢাকা বা দুর দুরাতœ হাসপাতালে। আবারও কাঁচা মাল নিয়ে যাওয়া আসা হয় বিভিন্ন অঞ্চল থেকে।

এ সড়কে নিয়মিত যানবাহনে যাতায়াত করেন এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা। সড়কের অবস্থা জানতে চাইলে স্থানীয় একজন বলেন, ‘আমি নিয়মিত অফিসের কাজে যাতায়াত করি। সড়কে ব্যাপক গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় মানুষের অনেক শ্রম ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে, পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি। দেশে বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়নের কারণে বিভিন্ন মহলে বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন প্রশংসনীয় হলেও এ সড়কটির দুরাবস্থার কারণে ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে।’

এই সড়কে যাতায়াত করা গাড়িচালক বলেন, ‘সড়কটির অবস্থা এত বেশি খারাপ যে, গাড়ি চালানো অনেকটা কঠিন। তার পরেও জীবিকার তাগিদে গাড়ি চালাতে হচ্ছে। সড়ক জুড়ে ব্যাপক গর্তের কারণে গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হচ্ছে।’

এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কাছে গেলে তিনি বলেন, ‘এ সড়কটি সংস্কারে ফ্লোর লেনে ঠিকাদার কাজ করছে। বৃষ্টির কারণে সংস্কার কাজ ব্যাহত হয়েছে। পুরোদমে সংস্কার শুরু করা হয়েছে। অল্প দিনের মধ্যে ভোগান্তি থাকবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....

All rights reserved © 2020 tajasangbad.com
Design & Developed BY Anamul Rasel
x