1. riajul.kst1@gmail.com : riajul :
  2. riajul.kst@gmail.com : riajul.kst@gmail.com :
শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

ভেড়ামারা থানায় ওসিসহ নেই তিন কর্মকর্তা

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৩৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আশরাফ হোসেন ঃ
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), পরিদর্শক (তদন্ত) ও ভেড়ামারা-দৌলতপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এই তিনটি পদ শূন্য থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দেখা দিয়েছে স্থবিরতা। চুরি-অপরাধ বেড়ে যাচ্ছে। সেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষ হয়রানি ও বিপাকে পড়েছে।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও ওসি তদন্ত না থাকায় মামলার তদন্ত  ব্যাহত  ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হতে পারে আশঙ্কা  সংশ্লিষ্টদের।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ভেড়ামারা থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ছিলেন মজিবুর রহমান তিনি বদলিজনিত কারণে দৌলতপুর থানায় যোগদান করেন।  এ পদে গত ২২ সেপ্টেম্বর মিরপুর থানার ওসি গোলাম মোস্তফা ভেড়ামারা থানায় যোগদান করেন। দেড় মাসের মাথায় গত ৫ নভেম্বর তিনি ডিএমপিতে বদলি হয়ে চলে যায়।  একই তারিখে পরিদর্শক (তদন্ত) নান্নু খান বগুড়ায় বদলি হয়ে চলে যায়।
এদিকে এর আগে ভেড়ামারা-দৌলতপুর সার্কেলর
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াছির আরাফাত বদলিজনিত কারণে তিনি ১অক্টোবর ঢাকা দুদকে বদলি হয়ে বিদায় নেন। এই পদে এখন অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন মিরপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আজমল হোসেন।
এই তিন কর্মকর্তার বিদায়ের পর  কেউই এখন পর্যন্ত  এসব পদে যোগদান করে নাই। বর্তমানে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রতাপ কুমার অতিরিক্ত  দায়িত্ব পালন করেছন। তিনিও দুই মাস আগে এ থানায় যোগদান করেন।
ভেড়ামারা ডাকবাংলো সুপার  মার্কেটের সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল ইসলাম মিলন বলেন,  ‘গত প্রায় একসপ্তাহ হতে চলেছে  থানার গুরুত্বপূর্ণ তিন কর্মকর্তা নাই। সম্প্রতি সময়ে একটি  হত্যাকান্ডসহ আরও দুটি হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়। সেইসব এলাকায় এখনও  উত্তেজনা রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আইনশৃংখলা পরিস্থতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে দ্রুত গুরুত্বপূর্ণ শূণ্য পদে যোগদান জরুরি।
তিনি আরও বলেন, অনেকে অভিযোগ করছেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি না থাকায় দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তা সাধারণ মানুষের ফোন রিসিভ করছেন না। শুধুমাত্র গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ছাড়া। সেবা প্রাপ্তিতে ভোগান্তি বাড়ছে ভুক্তভোগীর।
এবিষয়ে থানায় দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) প্রতাপ কুমারকে একাধিক বার মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
জেলা পরিষদের সদস্য ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল মুকুল বলেন, ভেড়ামারা থানার পুলিশ প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদে এখন কেউ নেই।  আইনশৃংখলা পরিস্থতি যে স্বাভাবিক রয়েছে, তা বজায় রাখতে দ্রুত এসব পদে যোগদান জরুরি ।
এ বিষয়ে ভেড়ামারা সার্কেলের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেছেন মিরপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আজমল হোসেন। তিনি বলেন,  ভেড়ামারা থানা গুরুত্বপূর্ণ জায়গা।  আশাকরি এসব শূন্য পদের কর্মকর্তারা কয়েকদিনের মধ্যে  চলে আসবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....

All rights reserved © 2020 tajasangbad.com
Design & Developed BY Anamul Rasel
x