1. raselahamed29@gmail.com : admin :
  2. riajul.kst@gmail.com : riajul.kst :
রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
৭ মার্চ উপলেক্ষ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা আটটি অঞ্চলে শিলাবৃষ্টির আভাস কুষ্টিয়ায় ট্রেনের বগি উদ্ধার শেষ পর্যায়ে, ৫ পাঁচটার দিকে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে কুষ্টিয়ায় রেলওয়ে টলিম্যানকে মধ্যযুগীয়ভাবে মুখের দাড়ি ছিড়ে নির্যাতনের অভিযোগ, ভিডিও ভাইরাল নতুন বিমান শ্বেতবলাকা ঢাকা পৌঁছেছে কুষ্টিয়ায় রেল ট্রলির সাথে মালবাহী ট্রেনের সংঘর্ষে ৫ বগি লাইনচ্যুত রাজবাড়ী ও ফরিদপুরের রেল যোগাযোগ বন্ধ কুষ্টিয়ায় মোটর সাইকেল রেখে ভয়ে পালালো ছিনতাইকারীরা সেনা অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারে অন্তত অর্ধশত মানুষকে গুলি, নিহত ৩৮ এইচ টি ইমাম আর নেই, তার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতির শোক কুষ্টিয়ায় গাঁজাসহ মোবাইল ব্যবসায়ী বিদ্যুৎ আটক

শীত আসছে, ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কুষ্টিয়ার লেপ-তোষকের কারিগর

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৯৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

হৃদয় খান, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়া শীত মোকাবেলায় প্রস্তুতি হিসাবে লেপ-তোষক তৈরীর তোড়জোড় চলছে। আবার কেউবা পুরাতনটাই ভালেভাবে মেরামত করে নিচ্ছে। সেই সাথে জেলায় প্রায় দুই শতাধিক কারিগররাও পুরাদমে ব্যস্ত সময় পার করছে। যেন তাদের সামান্য ফুসরত ফেলার সময় নেই। আবার কারিগররা আগে ভাগেই ক্রেতাদের আকর্ষণ করতে লেপ-তোষক তৈরি করে রেখেছে। যে যত বেশি আগে তৈরি করে নিতে পারবেন, তার লাভ ততই বেশি হবে। কারন হিসাবে তারা জানান, পুরা শীতের মৌসুমে তাদের ব্যস্ত থাকতে হবে। ফলে দোকানিরাও উপকরন গুলোর দাম বেশি হিসাবে বিক্রি করবে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জেলার ক্রেতারা শীতের কথা মনে রেখে আগে ভাগেই অর্ডার দিয়ে প্রয়োজন মত লেপ-তোষক বানিয়ে নিচ্ছে। অর্ডার পওয়ার পর কারিগররাও ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন। কুষ্টিয়ার কারিগররা জানান, শীত মৌসুমের পুরা তিন মাস (অগ্রায়ন, পৌষ, ও মাঘ) যে পরিমান কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। বছরের বাকি দিন গুলো কাজ কম থাকায় সেই ভাবে ব্যস্ত থাকেনা। প্রয়োজনের তাগিদে অন্য পেশার দিকে যেতে হয়। বর্তমান শীত আসার পরপরই কাজ বেশি, তাই ব্যস্ততা বেড়ে গেছে। তারা আরও জানান, তাদের একটি লেপ তৈরিতে তাদের সময় লাগে আড়াই থেকে ৩ ঘন্টা। এভাবে প্রতিদিন তারা ৪-৫টি লেপ-তোষক তৈরি করতে পারেন। এখন দিনে তারা ৬-৭ শত টাকা আয় করে যা অন্য মাসে হয়না। আবার কাজ বেশি হলে বাড়তি লোক খোঁজ করতে হয়।
শীত মোসুমের ৩ মাস যে ভাবে কাজের ব্যস্ত থাকে, সাধারনত বছররের অন্য মাস গুলোতে তারা অলস সময় পার করে। কোউ কেউ অন্য পেশায় চলে যায়। শীতের আগাম বার্তায় লেপ তোষকের অর্ডার বেড়ে যায়। তাই কারিগররাও ব্যস্ত থাকে। তবে ১ হাজার টাকার লেপের চাহিদা একটু বেশি। তবে আকার ভেদে, কাপড়ের তারতম্যে দাম বেশি কম হচ্ছে। তাছাড়া কেনা বেচা ভালইে হচ্ছে। শীতের তীব্রতা যত বেশি হবে বেঁচাকেনাও তত বেশি হবে বলে আশা করছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....

All rights reserved © 2020 tajasangbad.com
Design & Developed BY Anamul Rasel