1. raselahamed29@gmail.com : admin :
  2. riajul.kst@gmail.com : riajul.kst :
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়াসহ দোকান মার্কেটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না অনেক

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১
  • ২১৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি: রাজধানীরসহ কুষ্টিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে অনেক শপিং সেন্টারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। এর জন্য মার্কেট কর্তৃপক্ষ ক্রেতাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছেন। আর ক্রেতারা বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি কিংবা হাত ধোয়ার ব্যবস্থা মার্কেট কর্তৃপক্ষকে নিশ্চিত করতে হবে। শনিবার (১০ এপ্রিল) সকাল থেকে শহরের বেশ কয়েকটি শপিংমল ঘুরে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে উদাসীনতা দেখা যায় শপিংমলগুলোতে। মার্কেটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের কোনও মনিটরিং ব্যবস্থা চোখে পড়েনি।
কয়েকটি শপিং কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে হাত ধোয়ার জন্য একটি পানির ট্যাংক রাখা আছে, সঙ্গে সাবানও রয়েছে। তবে এ বিষয়টি দেখভাল করার জন্য ছিলেন না কেউ। ফলে যে যার মতো মার্কেটে প্রবেশ করছেন।
মার্কেটের সিকিউরিটি গার্ড বলেন, ‘মার্কেট খোলার পর থেকেই হাত ধোয়ার জন্য এই ব্যবস্থা। লোকজনের হাত ধোয়ার কথা বললে উলটো আমাকে বলে আপনি হাত ধোন।’
মার্কেটে আসা কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা হাত ধোয়ার পানির ট্যাংক দেখতে পাননি। আগেই মার্কেটের ভেতরে ঢুকে পড়েছেন। হাত ধোয়া কিংবা স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা নেই। পাওয়া যায়নি কোনও সিকিউরিটি গার্ড। আর মার্কেটের ভেতরেও মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মার্কেট কর্তৃপক্ষের কোনও তৎপরতাও চোখে পড়েনি।
এই মার্কেটের সিকিউরিটি গার্ড পান্না বলেন, ‘গতকাল মার্কেট খুললেও স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা কিংবা স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা মার্কেট থেকে করা হয়নি। যদি করা হতো তাহলে আমার নিজেরও উপকার হতো।’ মার্কেট কর্তৃপক্ষ এসব জিনিসের ব্যবস্থা না করায় তিনিও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
মুক্তিযোদ্ধা মার্কেটের মালিক সমিতির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জনগণের ওপর দোষ চাপিয়ে বলেন, ‘জনগণ স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। এছাড়া লোকজনও মার্কেটে কম আসছেন।’
মিরপুর নিউমার্কেট গিয়ে দেখা গেছে, মার্কেটের প্রবেশমুখে নেই কোনও জীবাণুনাশক যন্ত্র কিংবা হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। মার্কেটের সিকিউরিটি ইনচার্জ মহিবুল আলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গতকাল মার্কেট খোলার পর থেকে হাত ধোয়া স্যানিটাইজার কিংবা জীবাণুনাশক কোনও যন্ত্র এখানে নেই। তবে বিভিন্ন শোরুমগুলো স্বাস্থ্যবিধি মানছে। মার্কেট কর্তৃপক্ষ থেকে আমাদের কিছু দেওয়া হয়নি। নেই শরীরের তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র কিংবা স্যানিটাইজার।’
মিরপুর শপিং সেন্টার ঘুরে দেখা গেছে, এখানে রয়েছে জীবাণুনাশক যন্ত্র। এছাড়া রয়েছে স্যাভলন মিশ্রিত হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। যারাই ঢুকছেন তাদের হাতে ছিটিয়ে দেওয়া হচ্ছে এই পানি। তবে এটা কতটুকু কার্যকরী কিংবা পরবর্তীতে কোনও সমস্যা হবে কিনা, সে বিষয়ে উদ্বিগ্ন রয়েছেন মার্কেটে আসা অনেকেই।
উত্তরা রাজলক্ষ্মী শপিংমল ঘুরে দেখা গেছে, মার্কেটে ঢুকতে নেই কোনও জীবাণুনাশক প্রক্রিয়াকরণ ব্যবস্থা, স্যানিটাইজার বা হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। পাওয়া যায়নি নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কাউকে। ‘মাস্ক ছাড়া নোএন্ট্রি’ বিষয়ক স্টিকার গেটের সামনে লাগানো থাকলেও এ যেন দেখার কেউ নেই। এখানে শুধু কাগজেই স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টি পরিলক্ষিত হয়েছে। কার্যত দৃশ্যমান কিছু দেখা যায়নি। বিক্রেতারা বলছেন, মার্কেটে ঢোকার সময় স্বাস্থ্যবিধি মানার যেসব বিষয় রয়েছে, যেমন স্যানিটাইজার কিংবা জীবাণুনাশক যন্ত্র, তা চোখে পড়েনি।
এদিকে কুষ্টিয়া শহরের দোকান মার্কেটগুলোতে একই চিত্র দেখা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....

All rights reserved © 2020 tajasangbad.com
Design & Developed BY Anamul Rasel